পুলিশের এজাহারে শিক্ষক হত্যাকারীর বয়স ১৬, জন্ম সনদে ১৯

0
97

স্টাম্প দিয়ে পিটিয়ে শিক্ষক উৎপল কুমার সরকারকে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীর বয়স মামলার এজাহারে ১৬ বছর দেখানো হলেও জন্ম সনদে তার বয়স ১৯ বছর ৬ মাস।

বুধবার (২৯ জুন) এ তথ্য জানিয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

হাজী ইউনুস আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজের সমাজকল্যাণ বিষয়ের প্রভাষক সফিকুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমরা জন্ম সনদ অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের ভর্তি করি। জন্ম সনদ অনুযায়ী তাদের রেজিস্ট্রেশন হয়। অভিযুক্ত শিক্ষার্থীর জন্ম জন্ম ১৭ জানুয়ারি ২০০৩। অর্থাৎ জন্ম সনদ অনুযায়ী তার বয়স ১৯ বছর ৬ মাস। কিন্তু মামলায় ১৬ বছর দেখানো হয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ সাইফুল ইসলাম একই গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ওই ছাত্র মাদরাসায় পড়েছে, লেখাপড়ায় অনিয়মিত ছিল। ইয়ার ড্রপ দিয়ে আমাদের প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হয়। ভর্তির সময় আমরা জন্ম সনদে উল্লেখিত জন্ম তারিখ অনুযায়ী তাকে ভর্তি করি। নবম শ্রেণীর রেজিস্ট্রেশনে তার জন্ম তারিখ উল্লেখ রয়েছে ১৭ জানুয়ারি ২০০৩।’

নিহতের ভাই অসীম কুমার সরকার বলেন, ‘মামলায় অভিযুক্তের বয়স উল্লেখ করা হয়েছে ১৬ বছর। সেখানে তার প্রকৃত বয়স লুকানো হয়েছে। প্রকৃত বয়স উল্লেখ না করলে ওই ছাত্রের বিচার হবে কিশোর আদালতে। আর প্রকৃত বয়স উল্লেখ করলে বিচার হবে সাধারণ আদালতে।’

অসীম কুমারের দাবি- ‘মামলায় অভিযুক্ত শিক্ষার্থীর প্রকৃত বয়স উল্লেখ করতে হবে। এ ছাড়া আমার ভাইকে হত্যার সঙ্গে যারা জড়িত তাদের সবাইকে শনাক্ত করে দ্রুত গ্রেফতার করতে হবে। ভাই হত্যার বিচার চাই। এ ছাড়া আমাদের আর কিছুই চাওয়ার নেই।’

আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম কামরুজ্জামান বলেন, ‘মামলায় আসামির বয়স কম উল্লেখ করা হয়ে থাকলে পরবর্তীতে প্রকৃত বয়স উল্লেখের সুযোগ রয়েছে। আমরা সব বিষয়ই তদন্ত করছি। আমাদের কয়েকটি টিম অভিযুক্ত ওই শিক্ষার্থীকে গ্রেফতারে অভিযান পরিচালনা করছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here