জমে উঠছে পশুর হাট, করোনা সংক্রমণ বাড়লেও স্বাস্থ্যবিধি মানছে না কেউই

0
93

সারা দেশে পবিত্র ঈদুল আযহা বা কোরবানির ঈদ উপলক্ষে জমে উঠছে পশুর হাটগুলো। মুসলমানদের বড় ধর্মীয় এ উৎসব উপলক্ষে গরু, মহিষ কিংবা ছাগলের ক্রেতা-বিক্রেতাদের ভিড় এসব হাটে ব্যাপক আকারেই লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এক্ষেত্রে করোনাভাইরাস সংক্রমণ পুনরায় বাড়তে শুরু করলেও দেশের বড় বড় পশুর হাটগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি মানছে না কেউই৷

সরেজমিনে কয়েকটি পশুর হাট ঘুরে দেখা গেছে স্বাস্থ্যবিধির মানার ক্ষেত্রে প্রথম শর্ত হিসেবে মাক্স পড়ার বাধ্যবাধকতাও ক্রেতা-বিক্রেতা কারো মধ্যেই দেখা যায়নি।

এর আগে গত ২৯ জুন সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে এবং শিল্পাঞ্চলে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণবিষয়ক সভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছিলেন বিদ্যমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে কোরবানির পশুর হাটে মাস্ক পরে ঢুকতে হবে এবং স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে।

এ বিষয়ে আইন প্রয়োগের কড়াকড়ি না থাকায় মাক্স না পড়েই পশুর হাটে যাচ্ছেন অনেকে। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতার দিকেই গুরুত্ব দিচ্ছেন সচেতন নাগরিকগণ। শহরের পশুর হাট ছাড়াও বিশেষত গ্রামীণ পশুর হাটগুলোয় স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে শিথিলতা দেখা গেছে। 

ফেনী শহরের একটি পশুর হাটে মো. সাকিব নামের এক ক্রেতা এ বিষয়ে বলেন, ‘গরু কিনতে এসে দেখছি চারদিকে হুড়োহুড়ি লেগেই আছে। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীরও তেমন কোন তৎপরতা নেই। তাই মাক্স পড়াসহ করোনা বিষয়ে সচেতন কারো মধ্যেই দেখা যাচ্ছে না’ 

প্রসঙ্গত, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে ১০টি ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১২টিসহ সারা দেশে ৪ হাজার ৪০৭টি পশুর হাট বসবে। সংখ্যা হয়তো দু-একটা বেশি-কম হতে পারে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। 






LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here