বন্যার পর আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারের পতন ঘটানো হবে: গয়েশ্বর

0
86

সরকার জনগণের জানমালের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। বন্যায় সিলেটবাসীর এই ভয়াবহ দুর্যোগে তারা জনগণের পাশে নেই। চলমান বন্যার পর এক দফা আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারের পতন ঘটানো হবে।

সোমবার (৪ জুলাই) সকালে সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার তেতলী এলাকার একটি কমিউনিটি সেন্টারে এক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

তিনি বলেন, আওয়মী লীগ সরকার কখনো জনগণের ভালো চায় না। তারা লুটপাটে ব্যস্ত। মেগা প্রকল্পের নামে দুর্নীতি করে জনগণের সম্পদ লুটপাট করছে। সিলেট যখন পানিতে ডুবছে তখন সরকার পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের নামে বিদেশী শিল্পী এনে নাচ গান করে জনগণের সঙ্গে তামাশা করেছে। আওয়ামী লীগ জনগনের জানমালের নিরাপত্তা দিতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। তাই পুরোদমে ব্যর্থ এ সরকারকে ক্ষমতার মসনদ থেকে বিতাড়িত করতে হবে। চলমান বন্যার পরে একদফা আন্দোলনের মাধ্যমে এই লুটেরা বাকশালী সরকারের পতন ঘটানো হবে।

উপজেলা বিএনপির ব্যবস্থাপনায় চিকিৎসক জোবায়দা রহমানের পক্ষ থেকে বন্যাকবলিত এক হাজার পরিবারকে খাদ্যসহায়তা প্রদান উপলক্ষে এ সভার আয়োজন করা হয়।

উপজেলা বিএনপির সভাপতি সাহাব উদ্দিনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক কোহিনূর আহমদের সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার আবদুল মুক্তাদির, সাবেক সংসদ সদস্য জহির উদ্দিন স্বপন, সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, জেলা বিএনপির সভাপতি আবদুল কাইয়ুম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক এমরান আহমদ চৌধুরী ও সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম আহমদ।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার কখনো জনগণের ভালো চায় না। তারা জনকল্যাণে কাজ না করে লুটপাটে ব্যস্ত। মেগা প্রকল্পের নামে দুর্নীতি করে জনগণের সম্পদ লুটপাট করা হচ্ছে।

খাদ্যসহায়তা প্রদানের সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এনামুল হক চৌধুরী, কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, সাবেক সংসদ সদস্য বিলকিস ইসলাম, শেখ সুজাত মিয়া, নির্বাহী কমিটির সদস্য শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী, নিপুন রায় চৌধুরী, সিলেট মহানগর বিএনপির সদস্যসচিব মিফতাহ সিদ্দিকী প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here