ব্রিটেনের রানির মৃত্যুতে ডি-ডে এর সূচনা; যা হবে আগামী কয়েকদিনে

0
66

ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে বাকিংহাম প্যালেস। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯৬ বছর। স্কটল্যান্ডের বালমোরাল প্রাসাদে পরিবারের সদস্যদের কাছাকাছি অবস্থাতেই পরপারে পাড়ি জমান রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ।

দ্য রয়েল ফ্যামিলির ফেসবুক পেইজে জানানো হয়, আজ বিকেলে রানি বালমোরালে শান্তিতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। রাজা এবং রানি দুজনেই আজ বালমোরালে থাকবেন। কাল মরদেহ লন্ডনে নিয়ে আসা হবে।

১৯৫২ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ব্রিটেনের সিংহাসনে বসেন রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। এরপর থেকে টানা ৭০ বছর ব্রিটেনের রানি ছিলেন তিনি। রানির মৃত্যুর পর ইংল্যান্ডসহ পুরো গ্রেট ব্রিটেনেই চলবে নানা ধরণের নিয়মতান্ত্রিক আচার অনুষ্ঠান।

প্রথা অনুযায়ী, রানির মৃত্যুর খবর প্রথমে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীকে জানানো হবে। প্রধানমন্ত্রীর পর জানবেন সংশ্লিষ্ট শীর্ষ কর্মকর্তারা। আর তা করা হবে বিশেষ কোড ওয়ার্ড অর্থাৎ সংকেতের মাধ্যমে। রানির কোড ‘লন্ডন ব্রিজ’। তিনি মারা গেলে বিশেষ টেলিফোন লাইনে বিষয়টি জানানোর সময় সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মকর্তা বলবেন, ‘লন্ডন ব্রিজ ইজ ডাউন’।

বাকিংহ্যাম প্যালেসের বাইরে টানানো নোটিশ

রানির শেষ মুহূর্তটায় তার জ্যেষ্ঠ চিকিৎসক পাশে থাকার কথা। তিনি তখন রানির ঘরে কে কে প্রবেশ করবেন তা নিয়ন্ত্রণ করবেন। ঠিক করবেন সাধারণ মানুষকে কী তথ্য জানানো যেতে পারে, তা-ও।

রানি মারা গেলে তার ব্যক্তিগত সচিবের ওপর প্রধানমন্ত্রীকে খবরটা জানানোর দায়িত্ব পড়বে। লন্ডনে পররাষ্ট্র দপ্তরের গ্লোবাল রেসপন্স সেন্টার থেকে এ খবর যুক্তরাজ্যের বাইরে ১৫টি দেশের সরকারের কাছে পাঠানো হবে। যুক্তরাজ্যের রানিই এসব দেশের রাষ্ট্রপ্রধান। এ ছাড়া রানির প্রভাব রয়েছে কমনওয়েলথভুক্ত এমন ৩৬টি দেশেও খবরটি পাঠানো হবে। এসব দেশের প্রধানমন্ত্রী, গভর্নর জেনারেল ও রাষ্ট্রদূতেরা শোক প্রকাশ করতে বাঁ বাহুতে সোয়া তিন ইঞ্চি প্রশস্ত কালো বন্ধনী পরবেন।

সাধারণ মানুষ খবরটি পাবে সংবাদমাধ্যমকে জানানোর পর। বাকিংহাম প্যালেসের ফটকে কালো নোটিশ টাঙানো হবে। প্রাসাদের ওয়েবসাইটটিও একই রং ধারণ করবে। মৃত্যুসংবাদ প্রচার করবে বিবিসি।

বিবিসির সংবাদ প্রদান

বিবিসি’র ঘোষকরা এরকম পরিস্থিতির জন্য সবসময় তৈরি হয়েই থাকেন, যাতে হঠাৎ খবর জানার পর একেবারে অপ্রস্তুত হয়ে না যান! কুইন মাদার এর মৃত্যু সংবাদ দেয়ার সময় বিবিসির ঘোষক পিটার সিজনস তার লাল টাই এর কারণ্র তোপের মুখে পড়েছিলেন। এরপর থেকে বিবিসি’র অফিসে কালো টাই আর স্যুট সবসময় মজুদ থাকে পরস্থিতি সামাল দেয়ার জন্য।

এদিকে খবরটি নিশ্চিত হয়ে যাবার পর, হোয়াইটহল জুড়ে পতাকা অর্ধ-নমিত করা হয়েছে। দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় গান স্যালুটের ব্যবস্থা করবে এবং জাতীয় নীরবতা ঘোষণা করা হবে।  লন্ডনের সেন্ট পলস ক্যাথেড্রালেও স্মরণ সেবার আয়োজন করা হবে।

রানির মৃত্যুর পরেই ঘোষণা দেয়া হয়েছে, ‘লন্ডন ব্রিজ ইজ ডাউন’। আর এরই মধ্যদিয়ে শুরু হলো D-day (ডি-ডে)। যা আগামী দশদিন চলমান থাকবে।

কি হবে ডি-ডে এর দশদিনে?

ডি-ডে+১
রানী এলিজাবেথের মৃত্যুর পর সকালে, চার্লস অ্যাকসেসন কাউন্সিলের দ্বারা নতুন সার্বভৌম রাজা হিসাবে শপথ গ্রহণ করবেন।

ডি-ডে+২
রানির কফিন বাকিংহাম প্যালেসে নিয়ে যাওয়া হবে।

গণমাধ্যম পলিটিকো জানিয়েছে, যেহেতু তিনি স্কটল্যান্ডের বালমোরাল প্রাসাদে মারা গিয়েছেন তাই অপারেশন ইউনিকর্ন সক্রিয় করা হবে, যার অর্থ তার কফিনটি রাজকীয় ট্রেনের মাধ্যমে লন্ডনে নিয়ে যাওয়া হবে। যদি তা সম্ভব না হয়, অপারেশন ওভারস্টুডি কার্যকর হবে, এবং কফিনটি প্লেনে পরিবহন করা হবে।  প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রীরা পৌঁছলে স্বাগত জানাবেন।

নতুন রাজা ‘কিং চার্লস’

ডি-ডে+৩ থেকে ডি-ডে+৫
রাজা চার্লস ওয়েস্টমিনস্টার হলে শোকপ্রস্তাব গ্রহণ করবেন এবং পরে তার নতুন রাজা হিসেবে যুক্তরাজ্য সফর শুরু করবেন।

যখন তিনি উত্তর আয়ারল্যান্ডে পৌঁছাবেন, তখন তিনি বেলফাস্টের সেন্ট অ্যান’স ক্যাথেড্রালে একটি সেবায় যোগ দেবেন।  এদিকে, অপারেশন লায়ন এর আগে একটি মহড়া অনুষ্ঠিত হবে। এসময় রানীর কফিন বাকিংহাম প্যালেস থেকে ওয়েস্টমিনস্টারের প্রাসাদে নিয়ে যাওয়া হবে।

কফিন আসার পর ওয়েস্টমিনস্টার হলে একটি শোকসভা অনুষ্ঠিত হবে।

ডি-ডে+৬ থেকে ডি-ডে+৯
রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ এর মরদেহ ওয়েস্টমিনস্টারের প্রাসাদে ওয়েস্টমিনস্টার হলে তিন দিন রাখা হবে। একে অপারেশন ফেদার বলা হচ্ছে।  প্রতিদিন ২৩ ঘন্টা ধরে দর্শনার্থীরা তাদের শ্রদ্ধা জানাতে সক্ষম হবেন।  নির্ধারিত সময়ের স্লটের জন্য ভিআইপিদের টিকিট দেওয়া হবে।

এসময় রাজা চার্লস আরেকটি শোকপ্রস্তাব গ্রহণ করতে ওয়েলসে যাবেন এবং কার্ডিফের লিয়ানডাফ ক্যাথেড্রালের একটি শোকসভায় যোগ দেবেন। এর পরদিনই রানীর শেষকৃত্যে অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়াও রানির মৃত্যুর মধ্য দিয়ে পরিবর্তন আসছে ব্রিটেনের জাতীয় সঙ্গীতে। পরিবর্তন আসবে সকল কাগুজে নোটেও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here