আফিফ নয়, টি-২০ ফরম্যাটে লিটনকেই চারে নামাতে চায় বিসিবি

0
50

অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহিমের অবসরের পরপরই টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে চার নাম্বার পজিশনে ব্যাট করার জন্য আফিফ হোসেনকে বেছে নিয়েছিলেন সবাই। তবে গুরুত্বপূর্ণ এ জায়গাটিতে আফিফের উপর বাজি রাখতে নারাজ বিসিবি। বরং লিটন দাসকে ওপেনিং থেকে সরিয়ে মুশফিকের স্থলাভিষিক্ত করতে চায় টিম ম্যানেজমেন্ট।

টেস্ট ক্রিকেটে আগে থেকেই মিডল অর্ডারে খেলে অভ্যস্ত লিটন। তবে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে তার কাঁধে থাকে ইনিংস সূচনার দায়িত্ব। এবার টি-টোয়েন্টিতেও ওপেনিং থেকে সরে যেতে হতে পারে তাকে।

জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানিয়েছেন এমন তথ্য। তবে এখন পর্যন্ত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি বলেও জানান নান্নু।  ক্রিকেটভিত্তিক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ক্রিকবাজে নান্নু বলেছেন, ‘আমরা ওকে (লিটন) চার নম্বরে নামানোর কথা ভাবছি। তবে এ বিষয়ে এখনও কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। ’

নান্নু বলেন, ‘দেখুন, আমরা লিটনকে ওপেনিংয়ের জন্য ভাবছি না এখন। তবে সে নিজে এ সিদ্ধান্তটি কীভাবে নেয়, কী ভাবছে সেটিও এখানে দেখতে হবে। আমরা সামনের অনুশীলনে ওর সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলবো। ’

লিটনকে চারে পাঠিয়ে আফিফ হোসেন ধ্রুবকে পাঁচ নম্বরে নামানো হবে জানিয়ে নান্নু আরও বলেন, ‘লিটন যদি রাজি হয়, তাহলে তাকে চারে পাঠানো হবে এবং আফিফ আসবে পাঁচে। ছয় নম্বরের জন্য বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার আছে। আসন্ন বিশ্বকাপে (অস্ট্রেলিয়ায়) আমাদের লম্বা ব্যাটিং লাইনআপ প্রয়োজন ‘

নতুন টেকনিক্যাল কনসালটেন্ট শ্রীধরন শ্রীরামও এটি চান বলে জানিয়েছেন নান্নু। তিনি বলেন, ‘শ্রীরামও এটি চায়। সে লিটনকে ব্যাট করতে দেখে বলেছে, চার ও পাঁচ নম্বরে লিটন-আফিফের মতো ব্যাটার প্রয়োজন। কারণ পাওয়ার প্লে শেষ হলে বাউন্ডারি হাঁকানো কঠিন। তখন তারা গ্যাপে খেলে রান বের করতে পারে। ওদের পাওয়ার হিটিংও বেশ ভালো। ’

নিজের ৫৪ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে এখন পর্যন্ত দুইবার চার নম্বর পজিশনে খেলেছেন লিটন। সেই দুই ইনিংসে তার সংগ্রহ ছিল ৮ ও ৯ রান।

উল্লেখ্য, এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচে দুই ওপেনার এনামুল হক ও নাইম শেখকে বসিয়ে দুই মেকশিফট ওপেনার মেহেদি হাসান মিরাজ ও সাব্বির রহমানকে খেলিয়েছিল বাংলাদেশ। সেবার সাব্বির ব্যর্থ হলেও দারুণ ব্যাটিংয়ে ক্রিকেট ভক্তদের মন জয় করেছেন মিরাজ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here